ক্লোন ফটোগ্রাফি

আসদাস

আমি এবং আমি


কয়েকদিন আগে ফেসবুকে এই ছবিটা আপলোড করেছিলাম। আমার বাসার দরজার সামনে বসে আমি একটা বই পড়ছি আর আমার দুটো ক্লোনে আমার দিকে তাকিয়ে আছে। অনেকেই জানতে চাইল, কিভাবে ছবিটা তোলা। ছবিটা আসলেই খুব মজার। আরও মজার ব্যাপার হল, যেকোনো সাধারন মানের “পয়েন্ট এন্ড শুট” ক্যামেরা দিয়েই এমন ছবি তোলা সম্ভব। তাই ভাবলাম আইডিয়াটা সবার সাথে শেয়ার করি।

বিস্তারিত পড়ুন

হিন্দি ছিঃনেমা

মেমেন্টো vs গাজনি

হিন্দি বুঝি না, বোঝার চেষ্টাও করিনি কখনও। কেন জানি হিন্দি ফিল্ম দেখাতে ভালও লাগে না। সাবটাইটেল সহ পেলে আমির খানের ছবি দেখি মাঝে মাঝে। দিল চাহ তা হে, লাগান দেখার পর মনে করলাম ওর ছবি দেখা যায়। কিন্তু এই আমিরও যখন হলিউডের কপি করা ছবিতে অভিনয় করে তখন আর তার উপর কেমনে শ্রদ্ধা থাকে? ভাবছেন, আমির খান আবার কপি করা ছবিতে কবে অভিনয় করল? করসে রে ভাই।

বিস্তারিত পড়ুন

এলো বিজয়ের মাস


আমাদের সবচেয়ে গর্বের অর্জন আমাদের স্বাধীনতা, আমাদের মুক্তিযুদ্ধ। ৪৭ এ বৃটিশ পরাধীনতার হাত থেকে গিয়ে পরলাম পাকিস্তানীদের হাতে। কেবলমাত্র ধর্মের ভিত্তিতে গঠিত, অগণতান্ত্রিক এবং অবৈজ্ঞানিক এই পাকিস্তান রাষ্ট্রটি গঠনের পর থেকেই বাঙালিদের তথা পূর্বপাকিস্তানীদের প্রতি শুরু হল পশ্চিমপাকিস্তানীদের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক নিপিড়ন আর সীমাহীন বঞ্চনা। ৫২, ৬৬, ৬৯, ৭০ এর আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় আসল ৭১, আসল ৭ই মার্চ।বাঙালির ক্রমবর্ধমান অসন্তোষ, স্বাধিকার আর আত্মনিয়ন্ত্রণের দাবী চিরকালের মত স্তব্ধ করে দিতে ২৫শে মার্চের কাল রাতে নিরীহ বাঙালিদের উপর ঝাপিয়ে পড়ল পাকিস্তানী হায়েনার দল। শুরু হল ইতিহাসের ভয়বহতম গনহত্যা।

প্রায় সাথে সাথেই শুরু হল প্রতিরোধ। শুরু হল আমাদের গৌরবের মহান মুক্তিযুদ্ধ। অন্যদিকে গঠিত হল ঘৃন্য রাজাকার-আল বদর-আল শামস্‌ বাহিনী। হত্য, ধর্ষন, লুটপাট- কি করেনি এই রাজাকারের দল। পরাজয় নিশ্চিত জেনে নয় মাসের এই যুদ্ধের শেষের দিকে ওরা পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করল আমাদের শ্রেষ্ঠ সন্তান বুদ্ধিজীবীদের। লাখ বাঙালির ত্যাগের বিনিময়ে ১৬ই ডিসেম্বর পেলাম স্বাধীনতা, আমাদের প্রিয় বিজয়। আর আমাদের এই বিজয় পূর্নতা পাবে তখনই যখন বাংলার মাটিতে, পশুরও অধম ঐ রাজাকারদের বিচার হবে।

———————————————————————————————————————————————————
বিজয়ের মাসকে উদ্‌যাপন করতে ব্যানার(হেডার) পরিবর্তন করলাম। মাসজুড়ে থাকবে এই ব্যানার। ফেসবুক আর টুইটরেও প্রফাইল ছবি পরিবর্তন করলাম। গতবার ফেসবুকে (১৪ থেকে ১৬ই ডিসেম্বর) প্রফাইল ছবি পরিবর্তন করে বাংলাদেশের পতাকা দেবার জন্য সবাইকে উৎসাহ দিয়ে একটা ইভেন্ট আয়োজন করেছিলাম আমরা ক’জন। বেশ সাড়াও পেয়েছিলাম। এবার দেখলাম অনেকেই এখনই প্রফাইল ছবি বদলে ফেলেছে।

পোকা-মাকড়

পোকার ছবি তোলা খুবই ঝামেলার কাজ। তার উপ্রে এইখানে পোকা মাকড়ের বড়ই অভাব।বাংলাদেশে কত সুন্দর সুন্দর প্রজাপতি ঘরের ভিতর ঢুকে যায়…মানুষের গায় বসে, আর এইখানে পোকার পিছনে দৌড়াই।অনেক চেষ্ট করে এইগুলি তুলসি।ছবি গুলো বেশ কিছুদিন আগেই তোলা। পোস্ট করলাম কিছুদিন সময় নিয়ে। যদি আরও কিছু পোকার ছবি তুলতে পারি, এই আশায়।

ফড়িং-১

বিস্তারিত পড়ুন