ফ্রেঞ্চ কোয়ার্টার, নিউ অর্লিন্স

পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়ে অনেক ব্যাস্ত আছি কিছুদিন ধরে। সামনে পরীক্ষা থাকলে যা হয়, অনেক সময় এমন হয় যে পড়ছি না, কিন্তু মাথায় সবসময় পরীক্ষার টেনশন থাকে। ছবি তোলাতুলি অনেক কমে গেছে স্বাভাবাবিক ভাবেই। একই কারনে অনেক দিন কোনো পোষ্টও দেয়া হচ্ছে না। কেন জানি আজ একটা পোষ্ট দিতে মন চাইল। তাই, বেশ কিছুদিন আগে তোলা কিছু ছবি দিয়ে ফাঁকিবাজি টাইপের একটা পোষ্ট দিলাম।

বিস্তারিত পড়ুন

দক্ষিণ যাত্রা (পর্বঃ দুই)

রাতের বেলা রেষ্টুরেন্টে থেকে খেয়ে দেয়ে হোটেলে ফিরলাম। তারপর, ডিজনি ওয়ার্ল্ডের ঠিকানা গুগল করতে গিয়ে দেখি ডিজনি বাবাজি অনেকগুলো থিম পার্ক করে রাখসে। যেকোন একটায় গেলেই আমরা সারাদিনের জন্য গিট্টু খেয়ে যাব। এর উপ্রে টিকেটের দামের ব্যাপারতো আছেই। ঠিক হল আমরা যাব ডিজনির হলিউড থিম পার্কে।

বিস্তারিত পড়ুন

দক্ষিণ যাত্রা (পর্বঃ এক)

শীতকালীন ছুটি আর ক্রিসমাস মিলিয়ে হাতে প্রায় একমাসের মত অবসর সময়। এই ছুটিতে কোথাও বেড়াতে না যাওয়ার মত বোকামি করাটা ঠিক হবে না। এখন থাকছি নিউ অরলিন্সে। আর আগামী বছর চলে যাচ্ছি ওয়াশিংটন ডিসি। তাই ভাবলাম দক্ষিণ দিকে, মায়ামি গেলে কেমন হয়। একবার ওয়াশিংটনের দিকে চলে গেলে মায়ামি, ফ্লোরিডা দেখতে যাওয়াটা কঠিন হয়ে যাবে। সাথে যোগ দিল দুই নেপালি আর আর এক ইন্ডিয়ান বন্ধু। ঠিক হল আমরা যাব কি-ওয়েষ্ট, আমরিকার সর্বদক্ষিণ প্রান্ত। যাবার পথে অর্লান্ডো পড়বে, তাই হয়ত ঢু-মারা হবে বিখ্যাত ডিজনি ওয়ার্ল্ডেও। আর বিচ-টিচ তো ঘোরা হবেই। তেমন কোনো নির্দিষ্ট প্ল্যান নেই।

বিস্তারিত পড়ুন

ক্লোন ফটোগ্রাফি

আসদাস
আমি এবং আমি


কয়েকদিন আগে ফেসবুকে এই ছবিটা আপলোড করেছিলাম। আমার বাসার দরজার সামনে বসে আমি একটা বই পড়ছি আর আমার দুটো ক্লোনে আমার দিকে তাকিয়ে আছে। অনেকেই জানতে চাইল, কিভাবে ছবিটা তোলা। ছবিটা আসলেই খুব মজার। আরও মজার ব্যাপার হল, যেকোনো সাধারন মানের “পয়েন্ট এন্ড শুট” ক্যামেরা দিয়েই এমন ছবি তোলা সম্ভব। তাই ভাবলাম আইডিয়াটা সবার সাথে শেয়ার করি।

বিস্তারিত পড়ুন

হিন্দি ছিঃনেমা

মেমেন্টো vs গাজনি

হিন্দি বুঝি না, বোঝার চেষ্টাও করিনি কখনও। কেন জানি হিন্দি ফিল্ম দেখাতে ভালও লাগে না। সাবটাইটেল সহ পেলে আমির খানের ছবি দেখি মাঝে মাঝে। দিল চাহ তা হে, লাগান দেখার পর মনে করলাম ওর ছবি দেখা যায়। কিন্তু এই আমিরও যখন হলিউডের কপি করা ছবিতে অভিনয় করে তখন আর তার উপর কেমনে শ্রদ্ধা থাকে? ভাবছেন, আমির খান আবার কপি করা ছবিতে কবে অভিনয় করল? করসে রে ভাই।

বিস্তারিত পড়ুন

পো’বয় ফেস্টিভল

ক’দিন আগেই হয়ে গেল নিউ অর্লিন্সের বিখ্যাত পো’বয় ফেস্টিভল। পো’বয় হচ্ছে বিশেষ এক ধরনের স্যান্ডউইচ। নানা রকমের পো’বয় আছে, চিকেন-বিফ-চিংরি-পর্ক-ক্যাট ফিশ আরও কত পদ। পো’বয় তৈরির মূল উপকরন ফ্রেঞ্চ ব্রেড। এটা সাধারনত দুই ফিট লম্বা বিশেষ ধরনের ব্রেড। এই ব্রেডের বাইরের আবরন হয় অনেক মচমচে আর ভেতরের অংশটা  মোলায়েম। ব্রেডের মাঝ বরাবর কেটে তার ভেতরে কিছু সস, সবজি আর চিকেন/বিফ/চিংরি/পর্ক দিলেই হয়ে গেল পো’বয়। এটা নিউ অর্লিন্সের সবচে জনপ্রিয় খাবার। নিউ অর্লিন্সকে বলা হয় “ইউনিক সিটি”; যে শহরে একটা স্যান্ডউইচ নিয়ে পুরো একটা উৎসব হয়, সেই শহরকে ইউনিক না বলে উপায় আছে?

ফ্রেঞ্চ ব্রেড সাথে কিছু সবজি

বিস্তারিত পড়ুন

প্রথম ব্লগর ব্লগর

বসন্তকালীন ছুটি প্রায় শেষ। কোথাও যাওয়া হল না এই ছুটিতে। বেশ কিছু কাজ জমে ছিল। ভাবছিলাম এই ছুটিতেই কাজগুলো করে ফেলব। কিন্তু তা আর হল কই! কেমন করে যে ছুটির পাচঁ দিন কেটে গেল টেরই পেলাম না। ভাবছিলাম আজ থেকে সিরিয়াসলি শুরু করব। এটা অবশ্য দুই তিনদিন আগে থেকেই ভাবছি। ছুটির বাকি আর মাত্র তিন দিন। আমার ছুটির সময়গুলা সাধারনত তিনটা ভাগে ভাগ করা যায়। প্রথম ভাগ যায় এটা ভেবে যে, মাত্র ছুটি শুরু হল, এত তাড়া কিসের, সময়তো আছেই। মাঝেরটা যায় এটা ভেবে যে, অনেক সময় নস্ট করে ফেলেছি, সামনের সময়টা কাজে লাগাতে হবে। শেষের ভাগটা যায়, আবার কবে ছুটি পামু তার ঠিক নাই, এই কয়দিন একটু আরাম কইরা লই, এটা ভেবে। এর মধ্যে শুরু হল প্রচন্ড মাথা ব্যাথা। কামে ফাকি দেওয়ার ভাল অজুহাত। আহ্ আজকে ইচ্ছামত সময় নস্ট করতে পারব, অপরাধবোধটা কম কাজ করবে। পেইনকিলার খেয়ে চুপচাপ সিনেমা দেখতে দেখতে রেস্ট নিতে থাকলাম।
বিস্তারিত পড়ুন